Kishoreganj | Tuesday, 18 December 2018, 4 Poush 1425, 19:08:18

Photo Gallery


Welcome to KTSC



---


ষোল কোটি মানুষের এ দেশে বহু শিক্ষিত যুবক বেকার, অধিকন্তু বহু শিক্ষার্থী কোন প্রকার যোগ্যতা অর্জনের আগেই ঝড়ে যায়। আমরা আর তা হতে দিতে পারিনা। সময় এসেছে সিদ্ধান্ত নেবার, আগামী প্রজন্মকে আমরা কিরূপ দেখতে চাই? লক্ষ লক্ষ শিক্ষিত বেকার, নাকি দক্ষ কর্মক্ষম জনশক্তি? প্রতিটি শিক্ষার্থীকে অন্তত একটি কর্মোপযোগী দক্ষতা দিতে পারলে, তবেই আমরা দেশের অবস্থা বদলাতে পারব। এ জন্য কারিগরি শিক্ষায় তাকে আকৃষ্ট করতে হবে, শিক্ষাকে করতে হবে আনন্দময়। কারিগরি শিক্ষায় এর সুযোগ অনেক বেশী, আমাদেরকে তা কাজে লাগাতে হবে।


শুধুমাত্র অ, আ, ক, খ অথবা A, B, C, D শিখলেই মানুষ হওয়া যাবে না। প্রয়োজন মানবিক গুনাবলীর। যেমন- ন্যায়বোধ, কর্তব্যবোধ, শৃংখলা, শিষ্টাচার,অসাম্প্রদায়িক দৃষ্টিভঙ্গি, মানবাধিকার, সহাবস্থান, সৌহার্দ, অধ্যবসায় ইত্যাদি সহ বিজ্ঞান মনস্ক, কুসংস্কার মুক্ত মানসিকতা - এ দায়িত্ব ও আমাদের নিতে হবে। বিশ্বায়নের এ যুগে দক্ষ মানুষের বিশাল চাহিদা। আমাদের মানুষ আছে, কিন্তু দক্ষতা না থাকায় লাখ-লাখ টাকা খরচ করে বিদেশ গিয়ে অমানবিক পরিশ্রম করে বেতন পায় দশ হাজার টাকা, আর পাকিস্তান, ভারত, নেপাল, কোরিয়া, সিঙ্গাপুরের লোকেরা দক্ষতার কারনে আরামের চাকরি করে বেতন পায় লাখ টাকা। আমাদের অদক্ষতার সুযোগে বহু সংখ্যক বিদেশিও এদেশে চাকরি করে মোটা অংকের বেতন নিয়ে যায়।  আমরা কি শুধুই চেয়ে চেয়ে দেখব ?


আসুন আমরা দেরীতে হলেও কারিগরি শিক্ষাকে গুরুত্ব দেই, আমাদের অবস্থা পরিবর্তনের লক্ষ্যে আগামী প্রজন্মকে গড়ে তুলি প্রতিযোগিতামুলক বিশ্ব-বাজারের উপযোগি দক্ষ ও কর্মক্ষম জনশক্তি হিসেবে, ভিশন ২০২১-এর কর্মী হিসেবে।


ধন্যবাদ



প্রকৌশলী এ কে এম রফিকুল আমীন
অধ্যক্ষ
কিশোরগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ
কিশোরগঞ্জ।